বিসমিল্লাহীর রহমানির রহীম

Home Signup
27th May 2022
Happy !!
Friday
Visit Our Official Website Abc24.GA
HomeAndroid Tipsপাওয়ার ব্যাংক কেনার আগে যা জানা প্রয়োজন
নিজের নামে Website বানাতে এখানে ক্লিক করুন
★ পাওয়ার ব্যাংক কেনার আগে যা জানা প্রয়োজন

পাওয়ার ব্যাংক কেনার আগে যা জানা প্রয়োজন

5 years ago
Administrator

This author may not interusted to share anything with others

কোথাও বেড়াতে যাওয়া কথা ভাবছেন অথবা সামনে লম্বা কোন ছুটিতে বাড়ি যাবেন। টুকটাক কেনাকাটা ও ভ্রমণ সামগ্রী গোছানোর কাজও চলছে। এর মধ্যে পাওয়ার ব্যাংক একটি গুরুত্বপূর্ণ আইটেম হতে পারে। কেননা ভ্রমণকালে যোগাযোগ রক্ষায় এটি দারুণ কাজে দেবে। আপনার স্মার্টফোন শুধুমাত্র কথা বলার যন্ত্র নয়। ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য আদর্শ ডিভাইসও। সঙ্গে যদি গেমস খেলার নেশা থাকে তা হলে তো কথাই নেই। কখন যে চুপিসারে আপনার স্মার্টফোনের চার্জ শেষ হয়ে যাবে, আপনি নিজেও জানবেন না। সেই জন্য জরুরি মুহূর্তে ফোনের চার্জ শেষ হয়ে গেলে, সেই বিপদজনক পরিস্থিতির মোকাবেলায় রয়েছে পাওয়ার ব্যাংক। সেজন্য সঙ্গে নিয়ে নিন একটি পাওয়ার ব্যাংক। চাহিদার উপর নির্ভর করে বাজারে নানা ব্র্যান্ডের পাওয়ার ব্যাংক পাওয়া যায়। ব্র্যান্ড ও মডেল অনুযায়ী রয়েছে রকমভেদ। তাই কেনার সময় ব্যবাবহারকারীরা কোনটা রেখে কোনটা কিনবেন তা ঠিক বুঝে উঠতে পারেন না। পাওয়ার ব্যাংক কেনার সময় কোন বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবে তা তুলে ধরা হলো: ১) ক্যাপাসিটি: এটা পাওয়ার ব্যাঙ্ক কেনার আগে সব থেকে বেশি বিবেচনা করতে হয়। যত বেশি mAh ক্যাপাসিটি হবে তত ভালো। আপনার ফোন বা ডিভাইসের ব্যাটারির ক্যাপাসাটি যতটা হবে অন্তত তার দ্বিগুণ হতেই হবে। ২) মাল্টিপল চার্জিং স্লট: এক সঙ্গে যাতে একাধিক চার্জিং স্লট থাকে সেটা দেখে নিন। এতে দুটাে সুবিধা রয়েছে। প্রথমত, চাইলে এক সঙ্গে একাধিক ডিভাইস চার্জ করতে পারবেন। দ্বিতীয়ত, যদি কোনও কারণে একটি স্লট খরাপ হয়ে যায়, তা হলে দ্বিতীয়টি ব্যবহার করতে পারবেন। ২ বা ৩টি স্লট বিশিষ্ট পাওয়ার ব্যাঙ্কের দামও খানিকটা বেশি হয়। ৩) লিথিয়াম পলিমার দেখে কিনুন: কেনার আগে অবশ্যই এটা দেখুন, পাওয়ার ব্যাঙ্কে কোন ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে। দু’ধরনের ব্যাটারি হয়ে থাকে – লিথিয়াম আয়ন এবং লিথিয়াম পলিমার। পলিমারের দাম একটু বেশি হলেও আপনার মোবাইল বা ডিভাইসের জন্য খুবই ভালো। তুলনায় আয়ন একটু সস্তা হয় ঠিকই, কিন্তু টেকসই একেবারেই নয়। ৪) ভালো ব্র্যান্ড দেখে কেনা: বাজারে নানান ব্র্যান্ডের পাওয়ার ব্যাংক পাওয়া যায়। অনেকগুলোতে অধিক মিলিঅ্যাম্পিয়ারের কথা বলা হলেও সত্যিকার অর্থে সে রকম পারফরমেন্স পাওয়া যায় না। তাই পাওয়ার ব্যাংকটি ভালো মানের না হলে অনেক সময় তা বিপদের কারণ হতে পারে। চার্জিয়ের সময় বিস্ফোরণ ঘটতে পারে। তাই ভালো ব্র্যান্ড ও ভালো মানের পাওয়ার ব্যাংক যাচাই করে কেনা উচিত। ৫) আকার : মডেল ও ডিভাইস অনুযায়ী বাজারে বিভিন্ন সাইজ ও আকৃতির পাওয়ার ব্যাংক পাওয়া যায়। মূলত এটি যাত্রাকালে অতিরিক্ত পাওয়ার ব্যাকআপ হিসেবে সঙ্গে রাখা হয়। তাই আকারে বড় হলে তা বহন করা কিছুটা ঝামেলার। তাই কেনার সময় সহজে বহনযোগ্য বা পকেটে রাখা যায় এমন কিছুই কেনা উচিত। ৬) ক্যাবল ও ওয়ারেন্টি চেক করা: পাওয়ার ব্যাংক কেনার সময় ওয়ারেন্টি চেক করে তা বুঝে নিতে হবে। কেননা প্রায় ডিভাইসেই কেনার পর সমস্যা দেখা দেয়। তখন যাতে তা বদলে বা সারিয়ে নেওয়া যায় তা বিবেচনায় রাখতে হবে। ৭) এছাড়া চার্জ দেওয়ার সবগুলো ক্যাবল পাওয়ার ব্যাংকের বক্সে রয়েছে কিনা তা ভালো করে যাচাই করে নিতে হবে।
5 years ago ( May 30, 2017 ) 174 views
Facebook

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

Related Posts